রাঙামাটি শহরে স্ত্রীর ধারালো দা’য়ের কোপে গুরুতর আহত স্বামী


আলমগীর মানিক    |    ০৫:১৭ পিএম, ২০২৪-০৬-১২

রাঙামাটি শহরে স্ত্রীর ধারালো দা’য়ের কোপে গুরুতর আহত স্বামী

আলমগীর মানিক

পারিবারকি কলহের জের ধরে স্ত্রীর ধারালো দা’য়ের কোপে স্বামী আজম আলী আজম(৬০) গুরুতর আহত। ঘটনার সাথে সাথে স্ত্রী শেলী আক্তার পালিয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা ১৫মিনিটের সময় শহরের দক্ষিণ কালিন্দপুর (উন্নয়ন বোর্ড কলোনী সংলগ্ন)এলাকায় এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর আহত আজম আলী আজম ৪ সন্তানের জনক। ২ মেয়ে ও ২ছেলে তবে ঘটনান সময় ছেলে মেয়ে কেউ বাড়িতে ছিল না।আজম আলী রাঙামাটি মাইক্রো বাস সমিতির লাইনম্যান বলে জানাগেছে।

আহত আজম আলী আজমের ভাবী আক্তার জাহান ও প্রতিবেশীরা জানান, দীর্ঘ দিন ধরেই তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতো। এসব নতুন কিছুই না পুরাতন ঘটনা। পরায় সময় তারা স্বামী স্ত্রী ঝগড়া বাঁধে। তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মামলাসহ বেশ কয়েকবার স্থানীয় ভাবে সালিশ বিচার ও হয়েছে। তবে বুধবার সকালে যে অনাকাংক্ষিত ঘটনা ঘটেছে।
 
ঘুমন্ত অবস্থায় ধারালো বটি দা দিয়ে স্ত্রী স্বামীকে এলোপাতারি কুপিয়েছে। মাথা,মূখ,পিঠে ও হাতে পায়ে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তাদের দীর্ঘদিনের কলহের জেরের কারনে নিকটতম আত্বীয়স্বজন ও প্রতিবেশী কেউ তাদের ঘরে যায়নি।

আক্তার জাহান বলেন,আমরা নিচে থাকি আমার দেবর উপরে থাকে। সকালে আমার দেবরের বাসায় তথা উপরে গরু জবাই করলে যে রকম আওয়াজ সে রকম আওয়াজ শুনতে পেয়ে পাশের্^র একজনকে নিয়ে আমি উপরে উঠি। তখন দেখি আমার দেবর জাবর কাটতেছে। আর  তার স্ত্রী শেলি জানালা দিয়ে পালিয়েছে। তখন সবাই বলে পুলিশকে খবর দাও তখন আমি বলি আগে তাকে হাসপাতাল নিয়ে যাও পরে আইনী ব্যবস্থা হবে। 
 
তখন আমরা রক্তমাখা অবস্থায় আজম আলী আজমকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে কর্তব্যরত তাকে দেখে জরুরী ভাবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। আক্তার জাহান আরো জানান, আজমের স্ত্রী শেলি ধারালো বটি দা দিয়ে ঘুমন্ত অবস্থা তাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে গেছে। জানাগেছে,আজম আলী আজমের বয়স-(৬০) ও স্ত্রী শেলী আক্তারের বয়স-(৫৫) বছর।
 

রাঙামাটি সদর জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাক্তার শওকত আকবর জানান,বুধবার সকালে শহরের কালিন্দিপুর এলাকায় হতে আজম আলী নামের এক ব্যক্তি জরুরী বিভাগে ভর্তি হয়েছিল। তার অবস্থা তেমন ভাল দেখে সাথে সাথে ওই রোগিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আজম আলীর মাথায় বেশ কিছু কুপ দেখা গেছে। প্রচুর রক্ত খনন হচ্ছে। ৮-১০টি স্থানে কোপের দাগ রয়েছে।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোহাম্মদ আলী জানান,শহরের কালিন্দিপুর এলাকায় স্ত্রী দা দিয়ে নাকি স্বামী কুপিয়েছে কিন্তু এব্যাপারে কেউ থানায় আনেনি। থানায় আসলে আইনগত সকল ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে।