পাহাড়ে সরকারী সেবাবঞ্চিত হলে প্রতিকার পেতে“জিআরএস”এ অভিযোগ করুন


আলমগীর মানিক    |    ০৭:২২ পিএম, ২০২৪-০৫-৩০

পাহাড়ে সরকারী সেবাবঞ্চিত হলে প্রতিকার পেতে“জিআরএস”এ অভিযোগ করুন

আলমগীর মানিক

সরকারী দপ্তরগুলো থেকে প্রয়োজনীয় সেবা বঞ্চিত হলে জিআরএস এর মাধ্যমে ঘরে বসেই অনলাইনে অভিযোগ জানিয়ে প্রতিকার পাবেন নাগরিকরা। সেবাবঞ্চিত সংক্ষুব্ধ নাগরিকদের মাঝে সরকারী সেবাপ্রদান নিশ্চিতকরণে এবং সংশ্লিষ্ট্য সরকারী কর্মকর্তাদের জবাবদিহিতার আওতায় আনতে অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা “জিআরএস” সিস্টেম চালু করেছে বর্তমান সরকার।

তারই ধারাবাহিকতায় জনগণের নিকট প্রশাসনের স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা ও সুশাসন নিশ্চিতকরণ এবং সেবার মানোন্নয়ন সংহতকরণের নিমিত্তে স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সমন্বয় সভা করেছে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিক এই সভায় সভাপতিত্ব করেছেন চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার(রাজস্ব) ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোঃ মোশারফ হোসেন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে উক্ত সভাটি সঞ্চালনা করেছেন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী কমিশনার তাহমিনা আক্তার।
 
সভায় রাঙামাটির সকল স্তরের সরকারী অফিসের প্রতিনিধিবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, গণমাধ্যমকর্মী, ব্যবসায়ি নেতৃবৃন্দসহ স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছেন।

সভায় জানানো হয়, বাংলাদেশ সরকারের সরকারী সেবা প্রাপ্তি সহজীকরণে এবং নাগরিকদের অসন্তোষ ও ক্ষোভ জানানোর পরবর্তীতে প্রতিকারের লক্ষ্যে সরকার অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা জিআরএস সিস্টেম চালু করেছে। ডিজিটাল মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসেই নাগরিকরা জিআরএস সিস্টেম এর মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন অভিযোগ জানাতে পারবে।

যা মূলতঃ অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা জিআরএস। বিভিন্ন সরকারি দপ্তর কর্তৃক প্রদানকৃত সেবা নিশ্চিতকরণের জিআরএস একটি প্ল্যাটফর্ম। জিআরএস ব্যবস্থার অন্তর্ভুক্ত প্রতিটি দপ্তরে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের একজন নাগরিক যে কোনো সেবার বিরুদ্ধে তার অসন্তোষ বা ক্ষোভ জানিয়ে অভিযোগ দাখিল করতে পারেন।

অভিযোগকারী নাগরিককে তার অভিযোগের বিষয়ে যেকোনো ধরণের অগ্রগতি বা সিদ্ধান্ত সম্পর্কে অবহিত করা এবং কোনো বিষয়ে তাঁর মূল্যবান মতামত বা পরামর্শ মূল্যায়ন করাও এই ব্যবস্থার অন্যতম। সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীরাও একইভাবে যে কোনো সেবার বিপরীতে তাদের অভিযোগ এখানে জানাতে পারবে নাগরিকরা।

অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থায় একজন নাগরিক নিবন্ধনপূর্বক তাঁর নাগরিক হিসেবে প্রাপ্য সেবা-সংশ্লিষ্ট অভিযোগ করতে পারেন অথবা ব্যক্তিগত তথ্য গোপন রেখে অজ্ঞাতনামা হিসেবে অভিযোগ করতে পারেন। তবে ধর্মীয়, কোনো আদালতে বিচারাধীন, তথ্য অধিকার, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে গৃহীত বিভাগীয় মামলা অথবা আইন বা বিধির আওতায় রিভিউ/আপিলের সুযোগ রয়েছে এরূপ বিষয়-সংশ্লিষ্ট অভিযোগ গ্রহণযোগ্য হবে না।

সভায় অংশগ্রহণকারিরা বলেন, সরকারী সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতিতে সেবাসমূহ জনগণ যাতে সহজে পেরে পারে সেই ব্যবস্থা করতে হবে এবং এ ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। এই জিআরএস সেবা সম্পর্কে তৃণমুল পর্যায়ের নাগরিকরা যাতে করে অবহিত হয় এবং এই সেবাগ্রহণ করতে পারে সেলক্ষ্যে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল সরকারী-আধাসরকারি অফিসগুলোর ফেইসবুক পেইজসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারনা চালানোর উপরও গুরুত্বারোপ করেছেন অংশগ্রহণকারিরা।  www.grs.gov.bd এই ঠিকানায় ক্লিক করে জিআরএস এ অভিযোগ জানানো যাবে।