অশান্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে মাঠে নামলে বিএনপিকে ঘরে থাকতে দেবোনা; অংসুইপ্রু 


নিজস্ব প্রতিবেদক    |    ১১:৫১ পিএম, ২০২২-০৮-১৫

অশান্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে মাঠে নামলে বিএনপিকে ঘরে থাকতে দেবোনা; অংসুইপ্রু 

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি এখন রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। বিএনপি শূন্য এলাকা হওয়াতে এখন অনেক ভালো আছি, শান্তি শৃংঙ্খলা বজায় রয়েছে ,এলাকায় উন্নয়নের জোয়ার বইছে। দেশে গনতান্ত্রিক চর্চা হচ্ছে। 

২০০১ থেকে ২০০৬ পযন্ত আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা ঘরে থাকতে পারেনি, ঈদের জামাত নামাজ পড়তে পারেনী, বাজারে যেতে পারেনী। বিএনপির পেট্টোলবোমা সন্ত্রাসীরা এখন বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারনে দ্রব্যমূল্যের সুযোগ নিয়ে মাঠে নামার চেষ্টা করছে। তাদের তাড়িয়ে দিতে হবে এবং প্রতিরোধ করতে হবে। তিনি বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেন, অশান্তি সৃষ্টির জন্য যদি মাঠে নামে তাহলে ঘরে থাকতে দেবোনা। আমরা প্রতিরোধ গড়ে তুলব।  আমরা রাজপথে এখনো নামিনি, রাজপথে নামলে বিএনপি পালানোর জায়গা খুঁজে পাবেনা।

তিনি সোমবার(১৫ আগষ্ট) দুপুরে কাউখালী উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে কাউখালী উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠন  আয়োজিত বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে  এসব কথা বলেন। 

অংসুইপ্রু চৌধুরী বলেছেন, ১৫ আগষ্ট হচ্ছে ষড়যন্ত্রের একটি দিন। এই দিন শুধুমাত্র জাতির জনকের পরিবারকে হত্যা নয় গোটা বাংলাদেশকে হত্যা করা হয়েছিল।  প্রকৃতপক্ষে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা একজন রাষ্ট্রপতি বা রাষ্ট্র নায়ককে হত্যা, তা কিন্তু নয়। এদেশের স্বাধীনতাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল। আর সেই হত্যাকাণ্ডের অন্যতম প্রধান কুশীলব ছিল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। কিন্তু ১৯৯৬ সাল থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর এ দেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্র বন্ধ হয়। তিনি বলেন, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাসবাদের মাধ্যমে দেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে।  তিনি এসব অপশক্তির বিরুদ্ধে দলের নেতা কর্মীদের সজাগ থাকার আহবান জানান। 

কাউখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও কাউখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামশুদোহা চৌধুরীর  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা আরো বক্তব্য রাখেন কাউখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি  কলমপতি ইউপি চেয়ারম্যান ক্যজাই মারমা, বেলাল উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক এরশাদ সরকার, যুগ্ন সম্পাদক হাবিবুর রহমান, ক্যচি মং মারমা, মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী হাসনা বানু, কাউখালী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অংক্যজ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, যুবলীগ নেতা মাঈন উদ্দিন খোকা, কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ ছগির হোসেন, ওলামালীগের সভাপতি মাওলানা হাসান মাহমুদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোঃ আজিজুর রহমান, ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শাহিন আলম অভি, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নেতা মোঃ আব্বাস উদ্দিন প্রমুখ।  

কাউখালী উপজেলা প্রশাসন, উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিস্তারিত কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে।  কর্মসূচীর মধ্যে ছিল আলোচনা সভা, মিলাদ মাহফিল, কাঙ্গালীভোজ, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগীতা ও বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠিানে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।